দ্য পিপল ডেস্কঃ টলিপাড়ায় আপাতত বিভিন্ন রাজনৈতিক দলে যোগদানের হিড়িক পড়েছে। অবশেষে সেই জল্পনাই সত্যি হল। বিজেপিতে যোগ দিলেন হিরণ চট্টোপাধ্যায়। নামখানায় অমিত শাহের সভা শুরুর আগেই রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের হাত থেকে বিজেপির পতাকা হাতে তুলে নেন হিরণ। প্রথাগত এবং পেশাগত রাজনীতিকদের চেয়ে তারকাদের নিয়েই মাতামাতি বেশি তৃণমূল এবং বিজেপির।

এবার সেই তালিকায় ঢুকে পড়লেন তৃণমূল ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত অভিনেতা হিরণও। বুধবারই ঘটা করে বিজেপিতে নাম লিখিয়েছেন বাংলা ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির আরেক অভিনেতা যশ দাশগুপ্ত। বৃহস্পতিবার অমিত শাহের কাকদ্বীপের সভায় যোগ দিলেন হিরণ।

হিরণের দাবি, ‘অলক্ষ্মী বিদায়ই লক্ষ্য! বাংলা থেকে অলক্ষ্মী বিদায় করে লক্ষ্মী ফেরাতে চাই। বাংলায় কর্মসংস্থান নেই, বাংলার যুবরা বাইরে চলে যাচ্ছেন। তাঁদের ফেরাতে হবে।’ তাঁর আরও দাবি, ‘আমি সাধারণ ঘরের ছেলে। আমজনতার দুঃখ কষ্ট বুঝি। আর রাজনীতি হল সমাজ এবং সিস্টেম পরিবর্তনের বিরাট বড় হাতিয়ার। হাতে ক্ষমতা না থাকলে ক্ষমতার অপপ্রয়োগ আটকানো যাবে না।

২০১৪ সালে সেই স্বপ্ন নিয়েই একটা দলে যোগ দিয়েছিলাম, ভেবেছিলাম অনেক কিছু হবে। বাংলার পরিবর্তন হবে, কিন্তু রাস্তায় শুধু নীল-সাদা রং ছাড়া আর কিছুই হয়নি। হতাশ হয়েছি, এরপর নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে দেশজুড়ে যে কর্মযজ্ঞ শুরু হয়েছে তাতেই যোগ দিতে যাচ্ছি। উন্নয়নের জন্য সর্বভারতীয় দলকেই ক্ষমতায় চাই।’