দ্য পিপল ডেস্কঃ সন্দেহজনক লোকেদের ঘুরে বেড়াতে দেখা যাচ্ছে জম্মু-কাশ্মীরের কুঁদ এলাকায়। এমনটাই জানিয়েছেন উধমপুরের ডিআইজি সুজিত সিং।

তিনি জানিয়েছেন, সন্দেহভাজনদের খুঁজতে তল্লাশি শুরু করা হয়েছে।

যে কোনো রকমের পরিস্থিতির জন্য অপারেশন দলকে তৈরি থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

অন্যদিকে, ভারতের গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় ও সেনা বাহিনীর উপর ফের আত্মঘাতী জঙ্গি আক্রমণ ঘটতে পারে, এমন আশঙ্কা করে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেওয়ার বার্তা দিয়েছে আমেরিকাও। 

এই রিপোর্ট পাওয়ার পরই হাই অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে জম্মু-কাশ্মীরের উপত্যকা অঞ্চল সহ বিভিন্ন সেনা ঘাঁটিতে, বিশেষত বায়ুসেনা ঘাঁটিগুলিতে।

অমৃতসর, পাঠানকোট, শ্রীনগরের বায়ুসেনা ঘাঁটিগুলি মুড়ে ফেলা হয়েছে নিরাপত্তার চাদরে।

আগেই সেনার তরফে আগেই জানানো হয়েছিল, ফের সক্রিয় হচ্ছে সন্ত্রাসবাদী সংগঠন ও ডেরাগুলি।

প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত প্রায় ৫০০ আত্মঘাতী জঙ্গি অনুপ্রবেশের জন্য প্রস্তুত।     

একদিকে ৩৭০ ধারা বিলোপ ও অন্যদিকে একাধিক জঙ্গিঘাঁটি ধ্বংসের পাল্টা প্রতিশোধ নেওয়ার জন্য তৈরি হয়ে আছে জইশ-ই-মহম্মদের মতো আত্মঘাতী জঙ্গি সংগঠন।

উল্লেখ্য, জম্মু-কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহার করে নেওয়ার পর নাশকতার ছক কষছে জঙ্গি সংগঠনগুলি।

যে কোনো উপায়ে আক্রমণের চেষ্টা চালাচ্ছে তারা।

জঙ্গি সংগঠনগুলিকে মদত দেওয়ার অভিযোগ তুলে বিশ্বের দরবারে বার বার প্রশ্নের মুখে পড়েছে পাক সরকার ও পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের । তবুও ভারতকে আক্রমণ করতে মরিয়া পাকমদতপুষ্ট জঙ্গি সংগঠনগুলি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here