দ্য পিপল ডেস্ক : মালদায় লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। একই দিনে আক্রান্ত হলেন ৬ জন।

রাজস্থানের আজমির থেকে ফেরা আরও ৩ পরিযায়ী শ্রমিকের দেহ মিলল করোনাভাইরাস এর খোঁজ। মালদার হরিশ্চন্দ্রপুর-এলাকায় গত ৭২ ঘণ্টায় ১০ জন আক্রান্তের খবরে মিলেছে। এর জেরেই ছড়িয়েছে আতঙ্ক।


সূত্রের খবর, শুক্রবারের পর শনিবার নতুন করে আরও ৬ জনের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসে।

উল্লেখ্য আগে হরিশ্চন্দ্রপুরের ৪ জনের করোনা পজিটিভ ধরা পড়েছিল। ফের শনিবার সারাদিনে হরিশচন্দ্রপুর এলাকারই আরও ছয়জনের শরীরে মিলল এই মারণ ভাইরাস।

আক্রান্তরা সকলেই রাজস্থানের আজমির থেকে ফিরে ছিলেন বলে জানা সবমিলিয়ে জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা ১৩। তবে এদেরমধ্যে এক মহিলা শনিবারই শিলিগুড়ির হাসপাতাল থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

ছুটি পেলেও তাদের দিকে নজর রয়েছে স্বাস্থ্য দফতরের। হরিশ্চন্দ্রপুর ১ নম্বর ব্লক এলাকায় একের পর এক আক্রান্তের খবর মেলায় গ্রামবাসীদের মধ্যে আতঙ্কের পাশাপাশি প্রশাসনের বিরুদ্ধে ক্ষোভ দানা বাঁধছে।

গ্রামবাসীদের বক্তব্য রাজস্থান থেকে ফেরা শ্রমিকদের সরকারি কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে না রেখে হোম কোয়ারেন্টাইনের নির্দেশ দেওয়াতেই এই বিপত্তি। কারণ সরকারি নির্দেশকে উপেক্ষা করেই এই সমস্ত পরিযায়ী শ্রমিকরা ঘুরে বেরিয়েছিলেন বিভিন্ন এলাকায়।

এছাড়াও সরকারি নির্দেশ মত হোম কোয়ারেন্টাইনের পরিকাঠামো নেই বহু শ্রমিকের বাড়িতে।

তাই এই নির্দেশ যে কোনও কাজ দেয়নি সেটাই প্রমাণ করছে এই গ্রাম থেকে একের পর এক আক্রান্তের খোঁজ মেলায়। এখন দেখার প্রশাসন কি ব্যবস্থা নেয়।