দ্য পিপল ডেস্কঃ বেশ কয়েকদিন ধরে ক্রমাগত বৃষ্টি ও ডিভিসির জল ছাড়ায় হাওড়া সহ রাজ্যের বেশ কয়েকটি জেলায় বন্যা দেখা দিয়েছে। জলমগ্ন বর্ধমান, হুগলি, হাওড়া জেলার বিভিন্ন এলাকা।

বিশেষ করে প্লাবিত টোকাপুর, হরিহরপুর, কুড়চি। শুধু তাই নয় জলমগ্ন অবস্থায় রয়েছে মানিকচকের মথুরাপুর, নাজিরপুর, ধরমপুর সহ বিভিন্ন অঞ্চলের এলাকাও। একই অবস্থা জঙ্গিপুরেও।

ভারী বর্ষণ ও ফরাক্কা ব্যারেজ থেকে জল ছাড়ার ফলে সোমবার মধ্যে রাত থেকে প্লাবিত হল জঙ্গিপুর পৌরসভার বেশ কিছু ওয়ার্ড। জঙ্গিপুর পৌরসভার অন্তর্গত রঘুনাথগঞ্জের সরকারি পলিটেকনিক সহ বেশ কিছু ওয়ার্ড জলমগ্ন।

কোথাও এক হাঁটু জল কোথাও এক কোমড় জল। সোমবার মধ্যে রাতের পর থেকে ধীরে ধীরে বৃদ্ধি পাচ্ছে জল।

সোমবার ডিভিসির তরফে ১৭টি লকগেট খুলে দেওয়া হয়েছে দুর্গাপুর ব্যারেজের। সেখান থেকে প্রায় এক লক্ষ তিন হাজার কিউসেক জল ছাড়া হয়েছে। এর ফলে বন্যার পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে হাওড়া জেলাতে।

প্রসঙ্গত, ইংরেজবাজারে সহ মানিকচক ও রতুয়া ব্লকে ভেঙে পড়ছে অনেক মাটির বাড়ি ও কাঁচা বাড়ি। জল ঢুকে পড়ছে চাষের খেত, সরকারি অফিস ও হাসপাতাল গুলিতেও। সমস্যায় পড়েছে রোগী ও তাদের পরিবারের লোকজন। এই বন্যার মধ্যে দিয়েই হাসপাতালে চলছে জরুরী পরিষেবা।   

বৃষ্টির জেরে ফুঁসছে অজয়, ময়ূরাক্ষী। মুর্শিদাবাদে গঙ্গার ভাঙনের কবলে পড়েছে চাষের জমি এমনকী বসতবাড়িও। দক্ষিণবঙ্গের পাশাপাশি উত্তরবঙ্গেও চলবে বৃষ্টি। ফলে পুজোতে আশঙ্কার মেঘ রয়েছে উত্তরবঙ্গের ৫ জেলাতেও। বাদ পড়ছে না দক্ষিণবঙ্গও।   

ইতিমধ্যেই  মুর্শিদাবাদ সুতি থানার লখাইপুর গ্রামে বন্যার জলে প্লাবিত হয়ে বাড়ি ভেঙে প্রাণ হারায় এক স্কুল ছাত্র। ছাত্র নাম শুভজিৎ সরকার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here