দ্য পিপল ডেস্কঃ রক্ষাকালী, ভদ্রকালী, শ্মশানকালী আরও কত নামে পরিচিতা মা কালী। তেমনই দুর্গাপুজোর পর কার্তিকী কালীপুজো সেই দেবীর নাম দীপান্বিতা।

অমাবস্যায় পুজো হলেও মায়ের নামের সঙ্গে মিশে আছে দীপ অর্থাৎ আলো। এই দিন আলোর মালায় সেজে ওঠে প্রত্যেক বাড়ি।

কিন্তু জানেন কী কেন কার্তিকী কালীর নাম দীপান্বিতা? কেনই বা এদিন অমাবস্যাতেই আলোর উৎসব পালন করা হয়?

রামায়ণের কাহিনি অনুসারে, লঙ্কা বিজয় করে এই দিনেই শ্রীরামচন্দ্র সীতাকে নিয়ে অযোধ্যানগরীতে ফিরেছিলেন।

তাঁদের স্বাগত জানাতে দীপের আলো দিয়ে সারা নগর সাজিয়ে তুলেছিলেন অযোধ্যাবাসী।

আরও পড়ুন :অক্টোবর মানেই উত্‍সবের মাস

সেই দিনটিকে স্মরণ করে আজও দীপাবলীর দিন আলোর মালায় সেজে ওঠে আমাদের বাড়ি।

মহাভারতের কাহিনি অনুসারে, পাণ্ডবরা এই দিনেই বারো বছর বনবাস আর এক বছর অজ্ঞাতবাস শেষে হস্তিনাপুরে ফিরেছিলেন।

সেদিনও তাঁদের ফিরে আসার আনন্দে আলো দিয়ে নগরী সাজিয়েছিলেন বাসিন্দারা।

তাই সেই দিনটি আজও স্মরণ করা হয় দীপাবলী আলোর উৎসবে।

পুরাণ অনুযায়ী, দেবতা ও অসুরদের দীর্ঘদিন যুদ্ধের পর দেবতারা পরাজিত হয়ে বিতাড়িত হন স্বর্গ থেকে।

আরও পড়ুন :কালীপুজোর আগের দিন চোদ্দ শাক খেতে হয় কেন?

তখন দেবী আদ্যাশক্তি ভগবতীর স্তব আরম্ভ করেন দেবতারা । এমন সময় দেবীর শরীর থেকে আবির্ভূতা হন কাল-ভয়-নাশিনী দেবী কালী।

প্রচণ্ড লড়াইয়ের শেষে সব অসুরদের পরাজিত করে দেবী শান্তি ফিরিয়ে আনেন । এর পর স্বর্গে ফিরে এসেছিলেন দেবতারা। সেই আনন্দে দেবতারাও আলো দিয়ে সাজিছিলেন স্বর্গপুরী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here