দ্য পিপল ডেস্ক: কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ যেভাবে সরাসরি সিপিএম ছেড়ে বিজেপিতে যোগদানের আহ্বান জানিয়েছিলেন, তাতে বিরক্ত ত্রিপুরা থেকে নির্বাচিত রাজ্যসভার বাম সাংসদ ঝর্ণা দাস বৈদ্য। সেই সাক্ষাৎকারের বিষয়টিকে তিনি তিক্ত অভিজ্ঞতা বলেই জানালেন।

আমাদের WHATSAPP গ্রুপে যুক্ত হতে ক্লিক করুন: Whatsapp

বাম সাংসদের সঙ্গে অমিত শাহের সাক্ষাৎকারের কথা পরে ত্রিপুরা সহ দেশের বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে জানান ঝর্ণা দাস বৈদ্য। এতে বিতর্কে জড়িয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। তবে ঝর্ণাদেবী আরও জানান, তিনি বিজেপিতে যোগদানের আহ্বান প্রত্যাখ্যান করার পরেই অমিত শাহ সরি বলেছেন।

জানা গিয়েছে, ত্রিপুরার এই বাম সাংসদ রাজ্যের পঞ্চায়েত নির্বাচনে রক্তাক্ত পরিস্থিতির বিষয় তুলে ধরতে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছিলেন। সেই সাক্ষাতের সময় অমিত শাহ বলেন- ত্রিপুরায় সিপিএমের দিন শেষ। আপনি বিজেপিতে যোগ দিন।

এই আহ্বানের পরেই ক্ষোভ প্রকাশ করেন ঝর্ণা দাস বৈদ্য। তিনি বলেন, আমি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছি। বলেছি-যতদিন একজন বামপন্থী থাকবেন ততদিন বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াই চলবে। তিনি আরও বলেন-আমি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করে রাজ্যের আইন শৃঙ্খলার চরম অবনতির কথা জানাতে এসেছি। বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতির কাছে আসিনি।

এদিকে সাংসদের বয়ান সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যমে প্রচারিত হওয়ার পরেই ত্রিপুরার রাজনৈতিক মহল আলোড়িত। আগেই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা রাজ্যের প্রধান বিরোধী নেতা মানিক সরকার কলকাতায় জানিয়েছিলেন- ত্রিপুরাকে গণহত্যার ল্যাবরেটরিতে পরিণত করার চেষ্টা চলছে।

মানিকবাবুর সেই মন্তব্যের পরেই তীব্র আলোড়ন ছড়ায়। ত্রিপুরায় বামেদের হটিয়ে বিজেপি ক্ষমতা দখল করার পর থেকেই রাজনৈতিক হামলা চলছে। লোকসভা নির্বাচন হয়েছে বিতর্কিত পরিস্থিতিতে বলে দাবি বিরোধী বাম ও কংগ্রেসের।

পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগেও পরিস্থিতি উদ্বেগজনক। বিরোধীদের দাবি, ত্রিপুরায় ক্ষমতাসীন বিজেপি পশ্চিমবঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেসের মতো পঞ্চায়েত ভোট লুঠ করেছে। প্রায় ৮৫ শতাংশ আসনে বিরোধীদের কোনও প্রার্থী দিতে দেওয়া হয়নি।

রাজ্যের এই পরিস্থিতি তুলে ধরতেই রাজ্যসভার সাংসদ ঝর্ণা দাস বৈদ্য দেখা করেছিলেন অমিত শাহের সঙ্গে। বাম সাংসদকে সরাসরি বিজেপিতে যোগ দেওয়ার প্রসঙ্গ প্রকাশ হতেই ক্ষোভ জানিয়েছে সারা ভারত গণতান্ত্রিক মহিলা সমিতি ও সিপিএমের সর্বভারতীয় নেতৃত্ব।

ঝর্ণাদেবী জানান, রাজ্যের পরিস্থিতি শুনে পরে অমিত শাহ বলেন তিনি শীঘ্রই পরিদর্শনে যাবেন।