দ্য পিপল ডেস্কঃ ২০১৯ নোবেল শান্তি পুরস্কারে ভূষিত হচ্ছেন ইথিওপিয়ার প্রধানমন্ত্রী অ্যাবি আহমেদ।

শান্তি, আন্তর্জাতিক সহযোগিতা এবং প্রতিবেশী ইরিত্রিয়ার সঙ্গে সীমান্ত সমস্যা মেটানোর জন্য তাকে মনোনীত করেছে নোবেল কমিটি।

শপথ নেওয়ার মাত্র ছয়মাসের মধ্যে ইরিত্রিয়ার সঙ্গে সম্পর্কের উন্নতি ঘটে তাঁরই হাত ধরে।

ইরিত্রিয়ার সমস্ত বন্দীদের বিনা শর্তে মুক্তি দেন তিনি।

তাঁর আগের রাষ্ট্রনেতারা যে দমনমূলক ব্যবস্থা নিয়েছিলেন তার জন্য ক্ষমা চান তিনি।

নমনীয় মনোভাবের কারণে খুব তাড়াতাড়ি দেশে জনপ্রিয় হন তিনি।

১৯৭৬ সালের ১৫ আগস্ট ইথওপিয়ার দক্ষিণের একটি শহর বেশাশায় অত্যন্ত দরিদ্র পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন অ্যাবি।

অভাবের সঙ্গে প্রতি মুহূর্তে লড়াই করতে করতে তাঁর বড় হওয়া। না ছিল আলো, না ছিল জল, এমনকী মাটিতে ঘুমিয়ে রাত কাটাতে হতো।

প্রথম জীবনে রেডিও জকি হিসেবে কাজ শুরু করলে পরে যোগ দেন সেনাবাহিনীতে।

পরে ইথিওপিয়ান পিপল রেভলুশনারি ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট তৈরি করেন এবং রাজনীতিতে দ্রুত তাঁর উত্থান ঘটে।  

ইথিওপিয়ার ১৫ তম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে বর্তমানে দায়িত্ব পালন করছেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here