দ্য পিপল ডেস্কঃ সংখ্যায় ইনি একা, তাতে অবশ্য তার খুব একটা কিছু যায় আসে না। কারণ ইনি নিজেকে একাই একশো ভাবেন। ভাবছেন তো কার কথা বলছি,  না কোনো মানুষের কথা বলছি না। এ এক বানরের কাহিনী।

আমাদের WHATSAPP গ্রুপে যুক্ত হতে ক্লিক করুন: Whatsapp

দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বুনিয়াদপুরের বানর রাজাকে চেনে না এমন কোনো মানুষ নেই।

বানরের অত্যাচারে অতিষ্ট এ তল্লাটের সবাই। কখনও বাড়ির খাবার লুঠ, দোকান লুঠ, গাছের সমস্ত ফল নষ্ট, আবার কখনো পথ চলতি মানুষকে আক্রমণ করে কামড় বসানো, এ সব কর্মকাণ্ডের জন্য এলাকায় খুব পরিচিত ইনি।

যদিও তল্লাটে আগে কখনও বানর দেখেনি কেউ, সংখ্যায় একটি হলেও আকস্মিক আগন্তুকের অত্যাচারে অতিষ্ট বুনিয়াদপুরের বাসিন্দারা।

বানরের ভয়ে বাড়ির মহিলারা আতঙ্কিত, ছোটো শিশুরাও বাড়ি থেকে বেরোতে ভয় পাচ্ছে। শুধু মানুষ নয়, অন্যান্য জীবজন্ত এমনকী পথচলতি কুকুর-বিড়ালও ভীতিগ্রস্ত এই বানরের অত্যাচারে।

এই বিষয়ে এলাকার এক মহিলা বাসন্তী রায় জানান, এই বানর কোথা থেকে এসেছে জানি না প্রচণ্ড বিরক্ত করছে সবাইকে, ভয়ে কেউ কোথাও বেরোতে পারছে না। বন দফতরের কোনো পাত্তা নেই। কবে যে এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাব তা ঈশ্বরই জানেন।

তবে বানর রাজার এহেন অত্যাচারে অতিষ্ট এই তল্লাটের বাসিন্দারা কখনো ওই অবলা জীবকে আঘাত করেন না। কারণ, পাছে শ্রীমান বজরংবলী পাপ দেন।

প্রতিবেদক-পল মৈত্র, দক্ষিণদিনাজপুর