দ্য পিপল ডেস্কঃ বাংলার পুজো কমিটিগুলিকে পাঠানো আয়কর নোটিশের প্রতিবাদে সুবোধ মল্লিক স্কোয়ারে প্রতিবাদী ধর্নায় বসল তৃণমূলের বঙ্গজননী শাখা।

আমাদের WHATSAPP গ্রুপে যুক্ত হতে ক্লিক করুন: Whatsapp

মঙ্গলবার সকাল থেকে ধর্না বিক্ষোভে সামিল হন তৃণমূলের মহিলা ব্রিগেড। উপস্থত ছিলেন রাজ্যের মন্ত্রী শশী পাঁজা, চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য, সাংসদ কাকলি ঘোষ দস্তিদার, বিধায়ক নয়না বন্দ্যোপাধ্যায় সহ অন্যান্য নেতৃত্বরা। ছিলেন কলকাতার মেয়র তথা নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ববি হাকিমও।  

গত বছরই কলকাতার বড় দুর্গাপুজো কমিটিগুলিকে আয়কর দফতর নোটিশ ধরিয়েছে। জানিয়েছে, আরটিআই ফাইল করতে হবে। আর এতেই বেজায় চটেছে রাজ্য সরকার।

রাজ্য সরকারের দাবি, কেন্দ্র ইচ্ছে করে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভাবে এসব করছে। বাংলায় দুর্গাপুজো বন্ধ করার জন্য বিজেপি চক্রান্ত করছে।

সেই সঙ্গে তৃণমূলের আরও দাবি, কমিটিগুলি মানুষের কাছে থেকে চাঁদা তুলে পুজো করে। উৎসবে কারো ব্যক্তি স্বার্থ জড়িতে থাকে না। তবে কেন্দ্র সরকার কেন এমন পদক্ষেপ নেবে?

এ প্রসঙ্গে কেন্দ্র সরকারকে একহাত নিয়ে মেয়র ববি হাকিম বলেন, পুজো ঘিরে কেউ যদি ব্যক্তিগত স্বার্থের কথা ভাবতেন তাহলে আয়কর নোটিশ দেওয়া যেত। কিন্তু এখানে তো তা হয় না। এটা একেবারে বেআইনি। আমরা মানব না। এ আসলে ধর্মের উপর আঘাত।

সাংসদ কাকলি ঘোষ দস্তিদার বলেন, দুর্গাপুজো বাঙালির কাছে আবেগ। কেন্দ্রের এই আচরণে বাঙালির আবেগে আঘাত করা হয়েছে।

অন্যদিকে বিজেপি সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়র খোঁচা, তৃণমূল এতদিন চিটফান্ডের টাকায় পুজো করেছে। সেজন্যই কড়া হয়েছে আয়কর দফতর।