দ্য পিপল ডেস্কঃ আয়ুক্ষয় হচ্ছে বাঙালির। গড় কমছে হুহু করে। সাম্প্রতিক এক সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, বঙ্গবাসীর আয়ু কমে যাবে সাত বছর। মাত্রাতিরিক্ত দূষণই এর কারণ।অবিলম্বে দূষণ নিয়ন্ত্রণ করতে না পারলে শিয়রে শমন।

গত কয়েকদিন ধরে দিল্লির দূষণ ভাবিয়ে তুলেছে দেশবাসীকে। পরিবেশবিদদের কপালেও দুশ্চিন্তার ভাঁজ।

দূষণের করাল থাবা থেকে বাঁচতে প্রায় তিনদিন ধরে দিল্লিবাসীকে মাস্ক পরে ঘুরতে দেখা গিয়েছে।

যাঁদের সে সামর্থ নেই, তাঁরা সজ্ঞানেই গিলেছেন দূষণের বিষবাষ্প।

বায়ুদূষণের জেরে কমছে আয়ু

দীপাবলি উপলক্ষে পোড়ানো বাজির বিষাক্ত গ্যাসে ভারী হয়ে উঠেছিল কলকাতার বাতাসওকলকাতার বিভিন্ন এলাকায় দূষণ এতটাই বেশি ছিল যে, সংবাদ মাধ্যমগুলিতে এনিয়ে হইচই হয়েছে বিস্তর।

এহ বাহ্য। শিকাগো বিশ্ববিদ্যালয়ের এনার্জি পলিসি ইনস্টিটিউটের একদল বিজ্ঞানীর গবেষণায় উঠে এসেছে চমকে দেওয়ার মতো তথ্য।

আরও পড়ুন : দিল্লির দূষণ নিয়ে পাঞ্জাব সরকারকে তোপ সুপ্রিম কোর্টের

জানা গিয়েছে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নিক্তি অনুযায়ী, দূষণের কারণে ভারত রয়েছে দু নম্বরে। দেশের প্রায় আটচল্লিশ কোটি মানুষের ওপর এর প্রভাব পড়বে মারাত্মক

গবেষকরা দেখেছেন, যেভাবে দিন দিন ভারতে দূষণ বাড়ছে, তাতে দেশের কয়েকটি জায়গার বাসিন্দাদের গড় আয়ু কমে যাবে সাত বছর।

তালিকায় রয়েছে পশ্চিমবঙ্গও। সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, ভারতীয়দের গড় আয়ু ৬৯ বছর।

দূষণ যেভাবে বাড়ছে, তাতে এই আয়ুই কমে দাঁড়াবে ৬২ বছরে। এবং এভাবে চলতে থাকলে পরিস্থিতি দাঁড়াবে ভয়ঙ্কর।

বায়ুদূষণের জেরে কমছে আয়ু,নিস্তার নেই গ্রাম্য জীবনেও

পৃথিবীর প্রতিটি দেশেই শহরের তুলনায় দূষণ কম গ্রামে।

তবে যেভাবে দূষণ বাড়ছে, এখনই তা রোধ করতে না পারলে, গ্রামীণ জীবনেও ছোবল মারবে দূষণ।

সেক্ষেত্রে গ্রামীণ এলাকার বাসিন্দাদের জীবনেও পড়বে মারাত্মক প্রভাব।

এদেশে চাকরি থেকে অবসরের বয়স ৬২-৬৫ বছর। যদি গড় আয়ু ৬২ হয়, তাহলে চাকরি থেকে অবসর নেওয়ার পরে পরেই মৃত্যু হবে।

এটাই ভাবিয়ে তুলেছে পরিবেশবিদদের। তাঁরা চাইছেন জনসচেতনতা বাড়ানোর ওপর জোর দিক সরকার। শুধু তাই নয়, দূষণ নিয়ন্ত্রণে উপযুক্ত পদক্ষেপও গ্রহণ করুক

আরও পড়ুন : বায়ুদূষণ নিয়ন্ত্রনে আসছে বিশেষ রাসায়নিক

গবেষণা লব্ধ রিপোর্টে যে তথ্য উঠে এসেছে, তাতে সত্যিই শিয়রে শমন দাঁড়িয়ে রয়েছে।

এ থেকে আমরা বের হব কীভাবে? কীভাবেই বা ক্রমক্ষীয়মান আয়ু বাড়াতে পারব? এটাই আপাতত কোটি টাকার প্রশ্ন।

কবির সঙ্গে গলা মিলিয়ে আমরা কী বলব, দাও ফিরে সে অরণ্য লও এ নগর…

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here