দ্য পিপল ডেস্কঃ  আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের পর এবার ঘরোয়া ক্রিকেটেও ডিসিশন রিভিউ সিস্টেম চালু হতে চলেছে খুব শীঘ্রই । চলতি মরশুম থেকেই রঞ্জি ট্রফিতে ব্যবহার করা হবে DRS । আম্পায়ারের ভুল সিদ্ধান্তে বহু বিতর্কিত হয়েছে ক্রিকেট । আন্তর্জাতিক থেকে ঘরোয়া ক্রিকেটে সর্বত্রই একই অবস্থা ।

গত মরশুমের সেমিফাইনালে সৌরাষ্ট্র বনাম কর্নাটক ম্যাচে ১৩৫ রানের ইনিংস খেলে জয় ছিনিয়ে আনেন চেতেশ্বর পূজারা। সেই ম্যাচে বিনয় কুমারের একটি বল পূজারার ব্যাটে এডজ হওয়া সত্বেও আউট দেননি আম্পায়ার সৈয়দ খালিদ। এরপরই সেই আউট নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়। অভিযোগ জানানো হয় বিসিসিআইয়ের কাছে।

 ঘরোয়া ক্রিকেটে খারাপ আম্পায়ারিংয়ের জন্য নকআউট ম্যাচগুলিতেও লিমিটেড ডিআরএস ব্যবহার করা হবে। ২০১৯-২০ সালের রঞ্জি ট্রফি মরশুম থেকেই নিয়মটি চালু করা হবে। এমনটাই জানানো হয়েছে CoA তরফে।

 বিসিসিআই ও CoA মিটিংয়ে জানানো হয়, ঘরোয়া ক্রিকেটে খারাপ আম্পায়ারিংয়ের জন্য ক্রমশ ক্ষোভ জমছে ক্রিকেট ফ্যানদের মনে। তার জন্যই DRS নিয়মটি চালু করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বহু আলোচনার পর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, যে শুধুমাত্র নকআউট ম্যাচগুলিতে DRS নিয়মটি প্রযোজ্য হবে।

বিসিসিআই জেনারেল ম্যানেজার সাবা করিমও বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, খেলার মাঠে কোনওরকম ভুল সিদ্ধান্ত না নেওয়া হয়। তার জন্যই  CoA তরফে DRS নিয়মটি চালু করা হয়েছে। তবে এই বিষয়টি নিয়ে অফিশিয়াল ব্রডকাস্টার, ম্যাচ রেফারি ও আম্পায়ারের সঙ্গে আলোচনা করা হবে।

তবে ঘরোয়া ক্রিকেটে টেলিভিশন আম্পায়ারে এখনও পর্যন্ত হটস্পট বা বল ট্র্যাকার প্রযুক্তিটি ব্যবহার করা হয়নি। ডিআরএস-র জন্য দুটি প্রযুক্তির মধ্যে যে কোনও একটি উপলব্ধ করতে হবে ।

প্রাক্তন ভারতীয় উইকেটরক্ষক করিম জানান, যদিও অন্য কোনও ঘরোয়া ক্রিকেট প্রযুক্তির ব্যবহার না করে। তাহলে আমরা ঘরোয়া ক্রিকেটে সমস্ত রকম ভালো প্রযুক্তি ব্যবহার করে বিষয়টির নিষ্পত্তি করব।

 DRS নিয়মটি চালু হওয়ার পর ভারতীয় ক্রিকেটে স্বচ্ছতা কতটা ফেরে ? এখন শুধু সময় বলবে।   

13 COMMENTS

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here