দ্য পিপল ডেস্ক : লাদাখ সীমান্তে ভারত-চিন অশান্তি অব্যাহত। সেনা মোতায়েন, সেনা প্রত্যাহারের ঘটনা ঘটেই চলেছে।

চলতি মাসের শুরুতে লাদাখের নিরাপত্তা খতিয়ে দেখতে গিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সেখানে গিয়ে সেনাদের উদ্বুদ্ধ করেছিলেন।

চিনের বিরুদ্ধে গলা চড়িয়েছিলেন, যারা লাদাখে ভারতীয় ভূখণ্ডের ওপর নজর দেওয়ার সাহস দেখিয়েছে তাদের যোগ্য জবাব দেওয়া হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর পর নিরাপত্তা পর্যালোচনায় শুক্রবার লাদাখ যাচ্ছেন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং।


সরকারি সূত্রে খবর, জুলাই মাসের প্রথম সপ্তাহে লাদাখ যাওয়ার কথা ছিল প্রতিরক্ষামন্ত্রীর। তবে বিশেষ কারণে এই সফর বাতিল করা হয়।

অবশেষে শুক্রবার লাদাখ যাচ্ছেন তিনি। লাদাখের পাশাপাশি জম্মু-কাশ্মীরের কয়েকটি এলাকা শনিবার ঘুরে দেখবেন রাজনাথ সিং।

তাঁর সঙ্গে থাকবেন সেনাপ্রধান জেনারেল মনোজ মুকুন্দ নারাভানে। সূত্রের খবর, লাদাখে চিনের সঙ্গে সীমান্ত সংঘর্ষের কারণে সশস্ত্র বাহিনীকে আরও শক্তিশালী করতে চাইছে কেন্দ্র।

৩০০ কোটি টাকার অস্ত্র কেনার ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে বাহিনীকে। এক্ষেত্রে অস্ত্রশস্ত্র কেনায় সময়ের অপচয় কম হবে। ছয় মাসের মধ্যে বরাদ্দ নিশ্চিত হবে এবং তা এক বছরের মধ্যে হাতে চলে আসবে।