এই বাড়ির বাথরুমেই ১৫ বছর ধরে মরে পড়েছিলেন ওই মহিলা

দ্য পিপল ডেস্কঃ ১৫ বছর ধরে মরে বাথরুমে পড়ে আছেন এক মহিলা, অথচ তা টের পেল না কেউ। আশ্চর্যজনক ঘটনাটি ঘটেছে স্পেনের মাদ্রিদে।

ওই মহিলার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে ফোনের বিল, জলের বিল, লাইটের বিল সবই পেমেন্ট করার ব্যবস্থা ছিল। এমনকী ভোট কেন্দ্রের চিঠি পর্যন্ত ওই মহিলার বাড়ির ঠিকানায় এসেছে।

এত বছর ধরে সমস্ত বিল পেমেন্ট হয়েছে অ্যাকাউন্টের মাধ্যমেই। তাই প্রথম থেকে কেউ সন্দেহই করেনি।

জানা গেছে, একটি ফ্ল্যাটে একাই থাকতেন ওই মহিলা। প্রতিবেশী কারো সঙ্গে খুব একটা ভালো সম্পর্কও ছিল না। তাই তাঁর খোঁজ করেনি কেউ।

আরও পড়ুনঃ নিজের সন্তানের মতোই বাঘের শিশুকে স্তন্যপান করাচ্ছেন মানবী

প্রথমে একা ওই মহিলা সহযোগী হিসেবে এক জন কেয়ারটেকার রাখেন। ইন্টারকম ফোন আনায় পরে চাকরি থেকে ছাড়িয়ে দেওয়া হয় ওই কেয়ারটেকারকে।

এর পর থেকে একাই বাড়িতে থাকতেন মহিলা। মহিলার ফ্ল্যাটে কোনো লোকজনের আসা-যাওয়া ছিল না।

ব্যাঙ্কের প্রয়োজনে ওই মহিলাকে একবার ডেকে পাঠানো হয়। ব্যাঙ্ক কর্মীরা দেখেন প্রত্যেক মাসে নির্দিষ্ট সময়ে ওই মহিলার অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা কেটে নেওয়া হয়, অথচ কখনও টাকা তোলা হয় না। ব্যাঙ্কের পাসবুক আপডেট করাতেও আসতেন না ওই মহিলা।

মহিলাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ব্যাঙ্কের তরফে ইমেল করে বার বার খবর দেওয়া হয়, সাড়া পাওয়া যায়নি। এর পর ফোন করা হয় ব্যাঙ্কের তরফে। কিন্তু সেক্ষেত্রেও কোনো সাড়া মেলেনি।

এর পর ব্যাঙ্কের এক প্রতিনিধি ওই মহিলার বাড়িতে আসেন। অনেক ডাকাডাকি করেও কোনো উত্তর পাওয়া যায়নি।

এর পরই বাইরে বেরিয়ে আসেন প্রতিবেশীরা। এক প্রতিবেশী দেখেন, বাড়ির লেটার বক্সে চিঠি ঠাসা অবস্থায় রয়েছে। তা দেখে সন্দেহ হয় ওই প্রতিবেশীর।

আরও পড়ুনঃ ডিম খেতে না দেওয়ায় প্রেমিকের সঙ্গে পালাল বধূ!

খবর দেওয়া হয় পুলিশে। পুলিশে এসে দরজা ভেঙে ঢুকে দেখে বাথরুমে মৃত অবস্থায় পড়ে আছেন মহিলা।
ডাক্তার পরীক্ষা করে জানান, মহিলার মৃত্যু হয়েছে অন্তত ১৫ বছর আগে। অদ্ভুত ঘটনা যে, কেউ মৃতদেহের গন্ধ পর্যন্তও পেলেন না..

আসলে সেখানকার আবহাওয়া ও পরিবেশ সব সময় শীতল এবং মহিলা পড়েছিলেন বাথরুমের ঠান্ডা মেঝেতে। সেকারণেই মৃতদেহে পচন ধরেনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here