দ্য পিপল ডেস্কঃ বৃহস্পতিবার আগরতলার প্রথম উড়ালপুল তৈরি নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগ তুলেছেন ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব। মুখ্যমন্ত্রীর কথায়, এখনও অবধি দুর্নীতির অভিযোগে দুই চিফ ইঞ্জিনিয়রকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আরও অনেক প্রাক্তন নেতা মন্ত্রীর নাম উঠে আসবে বলে জানিয়েছেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রীর এহেন মন্তব্যে ইতিমধ্যেও উত্তপ্ত হয়েছে ত্রিপুরার রাজনৈতিক পরিস্থিতি।

এ বিষয়ে ত্রিপুরার কংগ্রেস নেতা সুবল ভৌমিকের সঙ্গে যোগাযোগ করে দ্য পিপল টিভি। তিনি জানিয়েছেন, ৩০০ কোটি টাকার এত বড় প্রোজেক্টে দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে বাম সরকারের বিরুদ্ধে। বহু মানুষ ঘরছাড়া হয়েছেন। কিন্তু প্রশ্ন হল ২ বছর আগে এই ব্রিজের কাজ সম্পুর্নভাবে সম্পন্ন হয়ে গিয়েছে। বাম সরকারের অবসানের পর ত্রিপুরাতে নতুন সরকারও এসেছে। কিন্তু তাঁরা ব্রিজের উদ্বোধনে এত সময় ব্যয় করল কেন?

পাশপাশি ত্রিপুরার কংগ্রেস সহ সভাপতির প্রশ্ন, দুর্নীতির অভিযোগ যদি সরকারের পুর্ত দফতরের কোনও আধিকারিকের বিরুদ্ধে প্রশ্ন ওঠে, তাহলে স্বাভাবিকভাবে ব্রিজের দায়িত্বে যে সংস্থা ছিল তাঁদের বিরুদ্ধেও অভিযোগ ওঠার কথা। কিন্তু তাঁদের বিরুদ্ধে কোনও অভিযোগ তোলা হল না কেন প্রশ্ন তোলেন কংগ্রেস নেতা। সেইসঙ্গে সুবল ভৌমিকের প্রশ্ন , তবে কি ওই সংস্থার সঙ্গে রফার ক্ষেত্রে এত সময় লেগে গেল? দু’বছর আগের তৈরি হওয়া উড়ালপুলের উদ্বোধনে এত সময় লাগল কেন? এবিষয়ে রাজ্যবাসী অন্ধকারে রয়েছে বলে দাবী করেন তিনি। এমনকি ঘটনার তদন্তভার কোনও কেন্দ্রীয় সংস্থার ওপর তুলে দেওয়া হোক বলে দাবী ত্রিপুরার কংগ্রেস নেতা সুবল ভৌমিকের।

এবিষয়ে ত্রিপুরার প্রাক্তন ডেপুটি স্পিকার পবিত্র করের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, বাংলায় যেমন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অভিযোগ তুলছেন, একই ভাবে ত্রিপুরাতেও বিপ্লব দেবের সরকার অভিযোগ তুলছে প্রাক্তন সরকারের বিরুদ্ধে । এই সমস্ত কথা বলে বামেদের বিরুদ্ধে কোনও চক্রান্ত তৈরি করা যাবে না বলে জানিয়েছেন তিনি। পাশপাশি মুখ্যমন্ত্রীকে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, অভিযোগ তিনি তুলছেন কিন্তু প্রমাণ কোনও দিন করতে পারবেন না।

প্রসঙ্গত, ক্ষমতায় আসার পর থেকেই আগরতলার প্রথম উড়ালপুল নিয়ে ত্রিপুরার প্রাক্তন বাম সরকারের বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলেন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব। অভিযোগ ওঠে প্রাক্তন পুর মন্ত্রী বাদল চৌধুরীর বিরুদ্ধে। এমনকি এ বিষয়ে গত অগাস্ট মাসেই তাঁকে জিজ্ঞাসবাদ করে তদন্তকারী বিভাগ। টানা ৬ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় ত্রিপুরার প্রাক্তন মন্ত্রীকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here