দ্য পিপল ডেস্কঃ করোনায় আক্রান্ত পালক। এর পরে কোয়ারিন্টনে পাঠানো হলো ৪৭টি ছাগলকে। করোনা আবহে সংক্রমণের কারণে বহু মানুষকে কোয়ারিন্টনে পাঠানো হয়েছে। কিন্তু তাই বলে ছাগল?  হ্যাঁ ঠিকই শুনেছেন।

পালক কর্তা করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় ৪৭টি ছাগলকে পাঠানো হয়েছে কোয়ারিন্টনে। অবাক হওয়ার মতো ঘটনা হলেও এটাই সত্যি।

ঘটনাটি ঘটেছে কর্নাটকের তুমাকুরু জেলার গোডেকেরে গ্রামে।ব্যাঙ্গালোর থেকে ১২৭ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত এই গ্রামটি।

সূত্রের খবর, এই গ্রামে প্রায় ৪০০টি বাড়ি রয়েছে। প্রায় হাজার মানুষের বাস এই গোডেকেরে গ্রামে। গ্রামের দুজনের শরীরে ধরা পড়েছে করোনা সংক্রমণ। তার মধ্যে একজন পেশায় ছাগ পালক। এর পর ওই লোকের চারটি ছাগল মারা গিয়েছে। এর পরেই আতঙ্ক ছড়ায় গোটা গ্রামে।

জেলা পশুস্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা এসে ৪৭ ছাগলের সোয়াব সংগ্রহ করে। গ্রামের বাইরে একটি জায়গায় কোয়ারেন্টাইন করে ছাগলগুলিকে আলাদা করে রাখা হয়েছে।

ছাগলগুলো করোনাতেই মরেছে কিনা তা জানতে এদের সোয়াব নমুনা বেঙ্গালুরুর ইনস্টিটিউট অফ অ্যানিম্যাল হেলথ অ্যান্ড ভেটেরিনারি বায়োলজিকসকে পাঠানো হয়েছে।