দ্য পিপল ডেস্কঃ সমস্ত জল্পনার অবসান। অবশেষে নিয়োগ করা হল চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ড দলের নয়া কোচ। ট্রেভর বেলিসের পরিবর্তে ক্রিশ সিলভারউডের ওপর দায়িত্ব দেওয়া দল ইংল্যান্ড দলের। পরের মাসের নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে সিরিজ দিয়েই যাত্রা শুরু করবেন ইংল্যান্ডের নয়া কোচ।

ক্রিশ সিলভারউড, অ্যালেস স্টুয়ার্ড, গ্যারি ক্রিস্টেন ও গ্রাহাম ফোর্ডের মধ্যে কড়া টক্কর হয়। বহু পর্যালোচনার পর রুট-মর্গ্যানদের হেড স্যার হিসেবে নিয়োগ করা হয় ৪৪ বর্ষীয় ক্রিশ সিলভারউডকে। এর আগে ২০১৭-১৮ মরশুমে অ্যাসেজ সিরিজে বোলিং কোচের দায়িত্ব পালন করে ছিলেন তিনি।

ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড ডিরেক্টর অ্যাশলে গিলস, চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার টম হ্যারিসন এবং হেড কোচে উন্নয়নশীল জন নিলের তিনজনের প্যানেলের মাধ্যমে নির্বাচিত করা হয় ক্রিশকে। ইন্টারভিউ প্যানেলে আগে অবশ্য এগিয়ে ছিলেন দঃ আফিকা ও ভারতের প্রাক্তন কোচ গ্যারি ক্রিস্টেন।

কোচ নির্বাচনের আগে বোর্ড ডিরেক্টর অ্যাশলে গিলস বলেছিলেন যে, কোনও দায়িত্ববান লোককে কোচ হিসেবে নিয়োগ করা হবে। এছাড়া ২০১৭ সালে একার দায়িত্বে অ্যাসেক্সকে কাউন্টি লিগে চ্যাম্পিয়ন্স করেছিলেন তিনি।

স্টোকসদের নয়া হেড স্যার দায়িত্ব পাওয়ার পর জানান, “আমি সবসময় ভালো কাজ করাই আমার মূল লক্ষ্য। গত ৫ বছর ধরে সেটির ওপর জোর দিচ্ছি আমি। বিশেষ করে টেস্ট ক্রিকেটে নিজস্ব ছাপ ফেলতে চাইছি।”                    

কোচিং কেরিয়ারঃ ২০১০ সালে অ্যাসেক্সে কোচিং স্টাফ হয়ে যোগ দান করেন। ৬ বছরের মাথায় হেড কোচ হিসেবে নির্বাচিত করা হয় তাঁকে। ক্রিসের কোচিংয়ে দুবার স্পেকসেভার কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশিপ ও টি-২০ ভিটালিটি ব্লাস্ট জেতে অ্যাসেক্স। ২০১৭ সালে ইংল্যান্ডের বোলিং কোচি হিসাবে নির্বাচিত হয় ৪৪ বর্ষীয় কোচ। পরের বছরই ঘরের মাঠে ভারতের বিরুদ্ধে বড় জয় পেয়েছিল ইংল্যান্ড। বিশ্বকাপ জয়ের পরে বহু প্রশংসা কুড়িয়েছেন তিনি। 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here