দ্য পিপল ডেস্ক:  চোরা পথে ভারতে এসে ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতা বাংলাদেশি মহিলার। দালালদের হাতে পড়ে গণ ধর্ষণের শিকার হতে হয় মহিলাকে। ঘটনাটি ঘটেছে বনগাঁর পেট্রাপোল সীমান্ত এলাকায়। 

জানা গেছে, কয়েক মাস আগে  চোরাপথে বাংলাদেশ থেকে কাজের খোঁজে বনগাঁয় আসেন ওই বাংলাদেশি মহিলা।। বনগাঁ থেকে কাজের খোঁজে চলে যান গুজরাটের সুরাটে। 

সেখানে গিয়ে কাজও পান। কিন্তু কাজ করতে গিয়ে বুঝতে পারেন তাঁকে খারাপ জায়গায় আনা হয়েছে। সেখান থেকে পালিয়ে ফের তিনি বনগাঁয় আসেন। এবং দেশে ফিরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন।

কিন্তু তাঁর কাছে কোনও  বৈধ কাগজপত্র না থাকায় সীমান্ত পার করে বাংলাদেশে ফিরে যাওয়ার জন্য তিনি সমস্যায় পড়তে হয় তাঁকে। বনগাঁর নরহরিপুরের দুই দালালের সঙ্গে যোগাযোগ করেন ওই মহিলা। সীমান্ত পার করে দেওয়ার জন্য চুক্তিও হয় তাদের মধ্যে। দিন দুয়েকের মধ্যে  চোরাপথে বাংলাদেশে পাঠিয়ে দেওয়ার কথা হয়। 

ওই মহিলা যে অসহায় তা বুঝতে পেরেছিল ওই দুই দালাল। অবস্থার সুযোগকে কাজে লাগাতে ছাড়েনি ওই দুই দালাল। মহিলাকে ধর্ষণ করে ঘটনাস্থল থেকে চম্পট দেয় ওই দুই দালাল। 

কিন্তু হাল ছাড়তে রাজি নন ওই মহিলা। পেট্রাপোল থানায় গিয়ে পুরো ঘটনা জানান তিনি। 

এরপরই ওই বাংলাদেশি মহিলাকে আটক করে তদন্ত শুরু করেছে পেট্রাপোল থানার পুলিশ। অভিযুক্ত দুই দালাল এখনও অধরা। তাদের খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here