দ্য পিপল ডেস্কঃ প্রয়াত হলেন বলিউডের কিংবদন্তী কোরিওগ্রাফার সরোজ খান। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭১ বছর। বৃহস্পতিবার রাত ১.৫২ নাগাদ হৃদরোগে আক্রান্ত হন তিনি।

গত ১৭ জুন বান্দ্রার গুরু নানক হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাঁকে। সেখানেই শুক্রবার সকালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন বলিউডের মাদার অফ কোরিওগ্রাফি।

তাঁর ডায়াবেটিসজনিত সমস্যাও ছিল। তাঁর করোনা পরীক্ষাও করা হয়েছিল। তবে রিপোর্ট নেগেটিভই এসেছিল বলে জানিয়েছেন সরোজের মেয়ে সুকন্যা খান।

সূত্রের খবর, ধীরে ধীরে সুস্থই হয়ে উঠছিলেন তিনি। এমনকী আগামী দু’ তিন দিনের মধ্যে তাঁকে হাসপাতাল থেকে ছুটিও দিয়ে দেওয়ার কথা ছিল।

শিশু শিল্পী হিসেবে বলিউড পা রাখেন নির্মলা নাগপাল ওরফে সরোজ। অভিনয় করেছিলেন নজরাজনা ছবিতে শিশু শ্যামার চরিত্রে।

এরপর ১৯৫০ সালে বিমল রায়ের মধুমতি ছবিতে কাজ করেন ব্যাগ্রাউন্ড ড্যান্সার হিসেবে। ১৯৮৭ সালে গীতা মেরা নাম ছবি দিয়ে কোরিওগ্রাফির জীবন শুরু করলেও তাঁকে পরিচিতি দেয় মিঃ ইন্ডিয়া ছবির হাওয়া হাওয়াই গানটির কোরিওগ্রাফি।

শ্রীদেবীর সঙ্গে নাগিন ও চাঁদনি ছবিতে ও কাজ করেন সরোজ। এরপর মাধুরি দীক্ষিতের সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধায় দু’জনের কেরিয়ারের গ্রাফই তরতর করে উঠতে থাকে।

তাম্মা তাম্মা লোগে, ‘মিস্টার ইন্ডিয়া’, ‘চাঁদনি’, ‘বেটা’, ‘তেজাব’, ‘নাগিনা’, ‘ডর’, ‘বাজ়িগর’, ‘আঞ্জাম’, ‘মোহরা’, ‘দেবদাস’, ‘লগান’, ‘সোলজার’, ‘তাল’, ‘সাথিয়া’, ‘স্বদেশ’, ‘এবিসিডি’ সহ একাধিক ছবিতে কোরিওগ্রাফি করেছেন তিনি ।

এছাড়াও তিনি কাজ করেছেন বাজিগর, ডর, তাল, মোহরা, দিলওয়ালে দুলহানিয়া লে যায়েঙ্গে, লগন সহ অসংখ্য ছবিতে। করেছেন ২০০০ টিরও বেশি গানের কোরিওগ্রাফি।

কাজ করেছেন হালফিলের কঙ্গনা রানওয়াতের ‘মণিকর্নিকা’ বা করণ জোহরের ‘কলঙ্ক’ ছবিতেও। কোরিওগ্রাফির পাশাপাশি তিনি স্ক্রিনরাইটিংয়ের কাজও করেছিলেন বেশ কিছু।

কিংবদন্তির মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে টিনসেল টাউনে। বি-টাউনে তার নাচের দক্ষতায় পঞ্চমুখ ছিল সকলেই।