দ্য পিপল ডেস্কঃ গ্রাম থেকে আসা নতুন ছেলেটার কপালে একটা চাকরী জুটেছে। ইলেকট্রিক মিটার রিডিংয়ের কাজ। প্রথম দিনেই ছাপোষা বেকার জীবনকে বিদায় জানিয়ে কাজ বেড়িয়ে পড়েছে ওই যুবক।

এক বাড়ির মিটার দেখতে বাড়ির মালিকের সঙ্গে দেখা হল তাঁর। হুইলচেয়ারে বসে রয়েছেন বৃদ্ধ। অজ্ঞাত বৃদ্ধের সঙ্গ দিতে তাঁর সঙ্গে গল্প জুড়লেন যুবক। কিন্তু একী! তিনি যেখানে দাঁড়িয়ে কথা বলছেন সেখানে ঘটে গিয়েছে এক নৃশংস খুনের ঘটনা । এবার কী করবেন যুবক?

সেটা জানতে হলে অবশ্যই আপনাকে দেখতে হবে রণদীপ সরকার পরিচালিত এবং অয়নজিৎ সেন প্রযোজিত ‘ব্লু লাইস’। স্বল্প দৈর্ঘের পাওয়ার প্যাকড থ্রিলার ছবিতে অভিনয় করেছেন অভিনেতা যশপাল শর্মা এবং সুব্রত দত্ত। ছবির গল্প লিখেছেন নীল ইন্দ্র।

যশপাল শর্মা সম্পর্কে নতুন কিছু বলার নেই। আমির খান অভিনীত ‘লাগান’ এবং অজয় দেবগণ অভিনীত ‘গঙ্গাজল’ ছবিতে অভিনয়ের জন্য প্রশংসিত হয়েছেন তিনি। পাশপাশি ছবির অপর এক অভিনেতা সুব্রত দত্তকে হইচই অ্যাপের ‘ব্যোমকেশ’ সিরিজের অজিতের চরিত্রে দেখা গিয়েছিল । যেখানে অনির্বাণ ভট্টাচার্যের সঙ্গে অসাধারণভাবে তাঁর চরিত্র ফুঁটিয়ে তুলেছেন তিনি।

এই বিষয়ে প্রযোজক অয়নজিৎ সেনের সঙ্গে কথা বলে দ্য পিপল টিভি। তিনি জানান, ছবির পোস্ট প্রোডাকশনের কাজ একবারে শেষের দিকে। চলতি বছরেই মুক্তি পেতে চলেছে ‘ব্লু লাইস’। এই নিয়ে লা পেলিকুলা মোশান পিকচার্সের ব্যনারে দ্বিতীয় কাজ পরিচালক রণদীপের। এর আগে ‘দায়রা’ ছবিতে এই জুটিকে কাজ করতে দেখা গিয়েছে।

একইসঙ্গে প্রযোজক অয়নজিৎ জানিয়েছেন, ছবির গল্প শুনে খুব কম সময়ের মধ্যে ছবিতে অভিনয়ের জন্য সম্মতি জানান যশপাল এবং সুব্রত। দু’জন দক্ষ শিল্পীকে একসঙ্গে পেয়ে আপ্লুত পরিচালক এবং প্রযোজক দু’জনেই।আগামী দিনে এই ছবি বিদেশে পাড়ি দেবে বলে জানিয়েছেন প্রযোজক আয়নজিৎ সেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here