দ্য পিপল ডেস্ক: বিজেপি করার তৃণমূলের কাছে খেসারত দিতে হল রায়গঞ্জের সুকুমার দাসকে। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর দিনাজপুর জেলার রায়গঞ্জের কর্ণজোড়ায়।  রায়গঞ্জের কর্ণজোড়া এলাকায় বিজেপির কর্মী বলেই পরিচিত সুকুমার বাবু। 

অভিযোগ, বিজেপি কর্মী হওয়ায় কিছুদিন ধরেই সুকুমার বাবুকে হুমকি দিতে থাকে তৃণমূলের বেশ কয়েকজন দুষ্কৃতী। প্রাণে মারার হুমকিও পর্যন্ত দেয়। বুধবার তাঁর বাড়ির সামনে এসে অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে তৃণমূলের দুষ্কৃতীরা। ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে বাড়ির বাইরে বেরিয়ে আসেন সুকুমার বাবু ও তাঁর স্ত্রী অঞ্জনা দাস। প্রতিবাদ করতে গেলে রড দিয়ে মারধর করা হয় সুকুমার দাসকে।  

অভিযোগ, ধারালো অস্ত্র নিয়ে তাঁর ওপরে চড়াও হয় দুষ্কৃতিরা। স্বামীকে বাঁচাতে গেলে দুষ্কৃতীদের ধারালো অস্ত্রের কোপে কান কেটে যায় অঞ্জনা দাসের। পাশাপাশি অঞ্জনাদেবীর গলায় থাকা সোনার চেন, কানের দুল ছিনতাই করে পালিয়ে যায় দুস্কৃতীরা। গুরুতর জখম অবস্থায় অঞ্জনা দেবীকে রায়গঞ্জ গভর্মেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার কানে ছটি সেলাই পড়ে। রাতেই কর্ণজোড়া পুলিশ ফাঁড়িতে অভিযোগ দায়ের করেন ওই দম্পতি। 

ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ। যদিও এখনও অবধি ঘটনায় কাউকেই গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। ঘটনায় এলাকাজুড়ে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here