দ্য পিপল ডেস্ক: অবশেষে মুখ খুললেন বিগ বসের প্রতিযোগী কোয়েনা মিত্র। খোলামেলা ভাবে কথা বলার পরেই অভিনেত্রী কোয়েনা মিত্রকে নিয়ে জোর চর্চা শুরু হয়েছে। কিন্তু তিনি কি এমন বললেন? আসুন জেনে নেওয়া যাক।

বিগ বসের ঘরে তাঁদের শোয়ের একটি অংশে কোয়েনাকে তার সঙ্গীদের সঙ্গে গল্প করতে দেখা যায়।

ওই সঙ্গীদের একজন কোয়েনার প্রেমজীবন সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করেন। ব্যক্তিগত জীবনে কোয়েনা কাউকে ডেটিং করছেন কিনা তাও জানতে চাওয়া হয়।

কোয়েনা মিত্র বলেন, আপাতত কারোর সঙ্গেই তিনি ডেটিং করছেন না। তিনি তাঁর প্রেমজীবন সম্পর্কে এক ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতার কথা জানালেন।

কথায় কথায় তাঁর ওপরে দখলদারি ফলানো থেকে সব সময় নজরদারি চালানো হত। ওই প্রাক্তন সঙ্গীর নাম অবশ্য তিনি প্রকাশ করেননি।

তিনি বলেন, মুম্বইতে থাকার সময় একবার তাঁর প্রেমিক ঘরের মধ্যে বাথরুমে তালাবন্ধ করে রেখে দিয়েছিলেন । যাতে কোয়েনা কাজের জন্য কোথাও বেরোতে না পারেন।

তার সঙ্গীদের সঙ্গে তাঁর জীবনের অশান্ত সম্পর্কের কথা শেয়ার করেন এবং বলেন যে, তাঁর প্রাক্তন প্রেমিক প্রায়শই জোর করত যাতে কোয়েনা তুরস্কে প্রেমিকের বাবা-মায়ের সঙ্গে দেখা করে।

একবার যখন কোয়েনা তাঁর প্রাক্তন প্রেমিককে জিজ্ঞাসা করেন তাঁরা বিয়ে করে তুরস্কে থাকার পরে তিনি কী করবেন?

তখন ওই প্রাক্তন প্রেমিক কোয়েনাকে বলেন যাতে তিনি তুরস্ক থেকে বেরোতে না পারেন তাই কোয়েনার পাসপোর্টটি তিনি পুড়িয়ে দেবেন। 

কোয়েনা মিত্র বলেন, প্রথমে রসিকতা হিসেবে ভাবলেও তিনি এই মন্তব্য শুনে ভয়ই পেয়ে যান। কয়েক বছর পরই তাঁদের সম্পর্ক ভেঙে যায়।

অথচ আমি কিন্তু তাঁকে খুব ভালবাসতাম। কিন্তু তাঁর পরিণতি যে এটা হবে একবারও ভাবিনি। তাঁর কথায় খুব কষ্ট পেয়েছিলাম। সেই সময়ে আমি খুব ভেঙে পড়েছিলাম। এই অভিজ্ঞতার পরে অন্ততপক্ষে তিন বছর ধরে কারও সঙ্গে ডেটিং করারও সাহস তিনি পাননি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here