দ্য পিপল ডেস্কঃ বেহাল পরিকাঠামো,উপযুক্ত প্রশিক্ষকের অভাব,আর্থিক দুরাবস্থা সহ একাধিক বাধা পেরিয়ে অদ্যম ইচ্ছেশক্তি, জেদ ও অধ্যাবসায় কে সঙ্গী করে​ সাফল্যের চূড়ার পথে  গুটি গুটি পায়ে এগিয়ে চলছে তারা। ২০১৮ সালের পর এবারেও জসমিন, অনুশ্রী,কাঞ্চন, কৃষ্ণাদের হাত ধরে বাংলার ঘরে এল রৌপ্য পদক‌।

মধ্যপ্রদেশের ভোপালে সদ্য অনুষ্ঠিত জাতীয় প্রতিযোগিতায় ফাইনালে শক্তিশালী মহারাষ্ট্রের কাছে ৮-৪ গোলে পরাজিত হয় কোচ বরুন ঘোষের মেয়েরা। সেই দলেরই সদস্যা তালদি সুইমিং ক্লাবের রশনি পারভিন, জসমিন খাতুন, রফিকা পারভিন, তালদি সুইমিং সেন্টারের অনুশ্রী দাস, খিদিরপুর ক্লাবের অনিশা শাহ, কলকাতা স্পোর্টসের কাঞ্চন হালদার, মালবিকা বিশ্বাস, কৃষ্ণা পুরকায়স্থ, হুগলীর প্রিয়াঙ্কা সাঁধুখা,তানিশা জোটে, হাওড়ার সালকিয়ার অন্বেষা আচার্য,রিয়া দাস ও মেদিনীপুরের পূজা দাস। 

সমগ্ৰ প্রতিযোগিতা জুড়ে ৯ টি গোল করে নজর কাড়ে দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা জেলার তালদি সুইমিং ক্লাবের জসমিন খাতুন‌। দলের অধিনায়িকা সেন্টার ফরোয়ার্ড পজিশনের খেলোয়াড় তালদি নিবাসী। অনুশ্রীর খেলার নেপথ্যে আসার কাহিনীটা আবার একটু অন‍্য। প্রিয় তারকা ক্যাপ্টেন কুল মাহি কে দেখে ছোট থেকে তারও মনে ইচ্ছে ছিলো ব্যাট হাতে মাঠে লড়ার কিন্তু বাবা তপন দাসের ইচ্ছেতেই সাঁতারে ভর্তি তার কিছু সময় পর চলে আসা ওয়াটার পোলোয়।

 জাতীয় জুনিয়র প্রতিযোগিতায় পরপর চার বছর (২০১৫,২০১৬,২০১৭ ও ২০১৮) বাংলার হয়ে প্রতিনিধিত্ব করেছেন পরিবারের স্বর্ণজয়ী কন্যা। ইতিমধ্যেই দেশের হয়ে জয় করে ফেলেছেন আন্তর্জাতিক পদক২০১৭ সালে শ্রীলঙ্কায় অনুষ্ঠিত সাফ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেন তিনি। ট্যাংরাখালি বঙ্কিম সর্দার  কলেজে তৃতীয় বর্ষে পাঠরত অনুশ্রীর লক্ষ‍্য জাতীয় সিনিয়র দলের হয়ে নিয়মিত খেলা।

 দলের ডিফেন্সের নির্ভরযোগ্য স্বম্ভ বছর কুড়ির অনিশার নামের পাশে রয়েছে তিনটি গোল ও, একবালপুরের মেয়ে অবশ্য এর আগেও তিনবার (২টি ব্রোঞ্জ ও ১টি ) জয় করেছে । দীর্ঘ দিন বাংলায় হয়ে​ খেলা দলে অংশগ্রহণকারী খেলোয়াড়দের অধিকাংশেরই পারিবারিক অবস্থা স্বচ্ছল নয়। দরকার চাকুরি, পরপর বহু সাফল্য আনার পর সেই দিকেই চেয়ে তাঁরা। রাজ্য ক্রীড়া মন্ত্রক সাহায্যের হাত বাড়ালে হয়তো চাকুরির পাশাপাশি শচীন নাগ,গোঁরাচাদ শীল,সুহাস চ্যাটার্জী,সমরেন্দ্র চ্যাটার্জী,অজয় চ্যাটার্জী, দূর্গা দাসের পর অলিম্পিয়ান তালিকায় যুক্ত হবে নয়া নাম।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here