দ্য পিপল ডেস্কঃ শুক্রবার ভারত সফরে আসছেন চিনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। তার আগেই বন্ধু পাকিস্তানের সঙ্গে বিচ্ছেদ করল চিন । এতদিন ধরে জম্মু-কাশ্মীর নিয়ে রাষ্ট্রসংঘে ভারতের বিরোধিতা করতে দেখা গিয়েছিল চিনকে। এখন সুর বদলে “জম্মু-কাশ্মীর ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়” জানাল বেজিং। যা ইতিমধ্যেই চিন সফররত পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের জন্য অস্বস্তি বাড়িয়েছে।

৫ ই অগাস্ট জম্মু-কাশ্মীরের ওপর থেকে ধারা ৩৭০ এবং ৩৫(এ) তুলে নেয় কেন্দ্রীয় সরকার। তারপর থেকেই জম্মু-কাশ্মীর ইস্যুকে কেন্দ্র করে ভারতের বিরোধিতায় সরব হয়েছে পাকিস্তান। এমনকি ভারতের সঙ্গে সমস্ত সম্পর্ক ছিন্ন করেছে পাক সরকার।

গত দুই মাস ধরে একাধিকবার রাষ্ট্রসংঘের মঞ্চে উপস্থিত হয়েছে ইসলামাবাদ। কিন্তু তাতে বারবারই মুখ পুড়েছে পাকিস্তানের। একমাত্র চিন ছাড়া কাউকেই পাশে পাননি পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। এমনকি জম্মু-কাশ্মীর যে ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়, তা স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। কিন্তু সর্ব্দাই পাকিস্তানের পাশে থেকেছে চিন।

দুই মাস পর চিনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের আচমকা বেজিংয়ের ভোল পাল্টানোর কারণ কি? তা খুঁজতে শুরু করেছে কূটনৈতিক মহল। সূত্রের খবর, ভারত সফরে দুই দেশের গুরুত্বপুর্ন বানিজ্যিক সম্পর্ক নিয়ে বৈঠকে বসবেন জিনপিং। ভারতের বাজার চিনের ক্ষেত্রে অত্যন্ত লাভজনক। অন্যদিকে একেবারে মুখ থুবড়ে পড়েছে পাকিস্তানের আর্থিক পরিকাঠামো। তাই পড়শি ভারতকেই পাশে পেতে মরিয়া তাঁরা। তাই ইসলামাবাদের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করতে চাইছে তাঁরা।

সেইসঙ্গে ভারতের বাজারে অতিশীঘ্রই আসতে চলেছে ফাইভ জি নেটওয়ার্ক। এবিষয়েও ভারতের সঙ্গে জিনপিং বৈঠক করবেন বলে সূত্রের খবর। সূত্রের খবর, কম দামে নতুন ফাইভ জি ফোন এনে ভারতের বাজারে নিজেদের প্রভাব বিস্তার করতে চাইছে বেজিং।

২০১৮ সালের উহান সম্মেলনের পর এই নিয়ে দ্বিতীয়বার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বৈঠক করবেন প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। সরকারি সূত্রের খবর, চেন্নাইয়ের বৈঠকে জম্মু-কাশ্মীর নিয়ে আগে থেকেই কোনও মন্তব্য করতে চায় না ভারত। তবে চিনের তরফে কোনও প্রশ্ন উঠলে চিনের কাছে ভারতের অবস্থান স্পষ্ট করে দেবে ভারত। জম্মু-কাশ্মীর ভারত অভ্যন্তরীণ বিষয় এবং তা ভারতের অবিচ্ছেদ্য অংশ জানিয়ে দেন ভারতীয় বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র রাভিশ কুমার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here