দ্য পিপল ডেস্ক- পৃথিবীর ২০ শতাংশ অক্সিজেনের আমদানি হয় কোথা থেকে? প্রশ্নের উত্তর, নি:সন্দেহে দক্ষিন আমেরিকার রেনফরেস্ট আমাজন । নাম না জানা উপজাতি এবং ১৬ হাজার প্রজাতির গাছগাছালি সম্বন্বিত ৫৫ লক্ষ বর্গকিলোমিটার এলাকা বিস্তৃত ‘পৃথিবীর ফুসফুস’-এর ভবিষ্যত আজ বিপন্ন । ভয়াবহ অগ্নিশিখা ক্রমশ গ্রাস করছে আমাজন নদের তীরে অবস্থিত চিরহরিৎ বনভূমিকে ।

ব্রাজিলের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ‘ইনপে’-র সমীক্ষা মতে,২০১৯-এ আমাজনে ৭২,৮৪৩টি দাবানলের ঘটনা ঘটেছে । যা গতবছরের তুলণায় ৮৩ শতাংশ বেশি ! দাবানলের প্রকোপ আগের সমস্ত রেকর্ড ছাপিয়ে গিয়েছে বলে দাবি ‘ইনপে’-র ।

বিধ্বংসী দাবানলের প্রভাবে কুণ্ডলী পাকানো ধোঁয়ায় ঢাকা পড়েছে সূর্য । ধোঁয়ায় ঢাকা পড়েছে ১৭০০ কিলোমিটার দূরে  ব্রাজিলের রাজধানী সাও পাওলোর আকাশ । ব্রাজিলের রোরাইমা প্রদেশ থেকে পেরুর আকাশেও হানা দিয়েছে ধোঁয়া ।

নাসার উপগ্রহ চিত্রেও ধরা পড়েছে আমাজনে ঘটতে থাকা ৯৫০৭টি নতুন দাবানলের চিত্র । প্রতিনিয়ত আমাজনের আগুনের উপর নজর রাখছে নাসা । আগুনের তীব্রতার ছবিও পাঠাচ্ছে নাসার একাধিক স্যাটেলাইট । তবে আগুনের থেকেও বিজ্ঞানীদের বেশি ভাবাচ্ছে ধোঁয়ার জাল ।

বৃষ্টিচ্ছায় অঞ্চল হওয়ায় বছরের বেশিরভাগ সময় বৃষ্টিপাত হলেও জুলাই-অগস্ট মাসে আমাজনের আবহাওয়া কিছুটা শুষ্ক হয়ে ওঠে । তবে স্থানীয় পরিবেশবিদদের ধারণা, প্রাকৃতিক ভাবে আগুন লাগেনি ।

ব্রাজিলের ফেডেরাল বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানীদের একাংশের মতে, শুকনো বাতাসে দাবানল জ্বলে ওঠা অস্বাভাবিক ঘটনা নয় । তাদের মতে, চাষের জন্য জমি বা খামার তৈরি করতে ইচ্ছাকৃত ভাবে জঙ্গলে আগুন ধরিয়ে দেন স্থানীয় গ্রামবাসীরা । সেখানেও এমনটাই হচ্ছে কিনা তা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে ।

প্রাকৃতিক সম্পদের পাশাপাশি খনিজ সম্পদের ভাণ্ডার আমাজন । খনিজ পদার্থের খোঁজে আমাজন অরণ্যে লাগাতার জঙ্গল সাফ করে খনন কাজ চালানো হয় । সাম্প্রতিক পরিসংখ্যান বলছে, প্রতি মিনিটে একটি ফুটবল মাঠের মাপের জঙ্গল কাটা হয় এখানে । ফলে স্বল্প বৃষ্টিপাতও আমাজনে আগুন লাগার অন্য একটি কারণ হতে পারে বলে ধারণা করছেন বিজ্ঞানীদের একাংশ ।

আমাজনে ভয়াবহ পরিস্থিতির জন্য দক্ষিণপন্থী প্রেসিডেন্ট জাইর বলসোনারোর নীতি দিকে আঙুল তুলছেন পরিবেশবিদেরা । ক্ষমতায় আসার আগেই আন্তর্জাতিক হুঁশিয়ারির তোয়াক্কা না-করেই আমাজনের রেনফরেস্টকে চাষ ও খনিজ উত্তোলনের কাজে ব্যবহারের কথা বলেছিলেন তিনি ।

উদ্যোগের ফলে বন উজাড় হয়ে যেতে পারে—আন্তর্জাতিক মহলের উদ্বেগের পরোয়া করেন নি বলসোনারো । ফলস্বরূপ আমাজনে অন্তত ৭২ হাজার অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে । মৃত্যু হয়েছে অনেক পশুপাখীরও ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here