দ্য পিপল ডেস্ক- ভ্রমণ পিপাসুদের কাছে অন্যতম আকর্ষণীয় স্থান বাহামা দ্বীপপুঞ্জ । বর্তমানে প্রাকৃতিক তান্ডবে বিধ্বংস পৃথিবীর অনন্য সুন্দর উপকূল ।  

হারিকেন ডোরিয়ানের তাণ্ডবে তছনছ বাহামা দ্বীপপুঞ্জ ।

ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে উত্তর-পশ্চিম বাহামার অ্যাবাকো ও গ্র্যান্ড বাহামায় বন্যা মারাত্মক আকার ধারণ করেছে ।

উদ্ধারকার্যে নামানো হয়েছে বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীকে । যুদ্ধকালিন তৎপরতায় বাহামা প্রশাসন বন্যা কবলিত এলাকায় ত্রাণ সামগ্রী পাঠানোর ব্যবস্থা করেছে ।

সমুদ্র উপকূলবর্তী এলাকাগুলি জারি হাই এ্যালার্ট ।

ডোরিয়ানে বিপর্যস্ত বাহামা

ইতিমধ্যেই জলস্তর তিন তলা পর্যন্ত ছুঁয়েছে । বিপর্যয়ের শিকার প্রায় ৭০ হাজার মানুষ ।

অধিকাংশই বন্যার জল থেকে বাঁছতে বাড়ির চিলেকোঠায় আশ্রয় নিয়েছে ।

ছ’ফুট জলের তলায় গ্র্যান্ড বাহামা বিমানবন্দরও । বন্যার জলের হাত থেকে রেহাই পায় নি আশ্রয় শিবিরও । দু’টি আশ্রয় শিবির ভেসে গিয়েছে ।

বাহামা প্রশাসন সূত্রের খবর, হারিকেন ডোরিয়ানের প্রভাবে এখনো পর্যন্ত অন্তত পাঁচ জনের মৃত্যু হয়েছে । জখমের সংখ্যা এখনই বলা সম্ভব নয় ।

তবে মার্কিন উপকূলরক্ষী বাহিনীর সহায়তায় গুরুতর জখম অবস্থায় ২১ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে। পুয়ের্তো রিকোয় ডোরিয়ানের প্রভাবে মৃত অন্তত এক জন ।

বাহামার প্রধানমন্ত্রী হিউবার্ট মিনিস জানিয়েছেন, দেশ এক ঐতিহাসিক ট্র্যাজেডির মধ্যে পড়েছে ।

ডোরিয়ানে বিপর্যস্ত বাহামা প্রভাব পড়তে পারে ফ্লোরিডা, জর্জিয়া ও দক্ষিণ ক্যারোলাইনায়

ইতিমধ্যেই ফ্লোরিডা, জর্জিয়া ও দক্ষিণ ক্যারোলাইনা থেকে সরানো হয়েছে লক্ষাধিক মানুষকে । বন্ধ রাখা হয়েছে বিভিন্ন বিমান পরিষেবাও ।

ডোরিয়ানের প্রভাব থেকে সাধারণ মানুষকে দূরে রাখতেই আগে থেকে তৎপর হয়েছে প্রশাসন । 

বিপর্যয়ের দিনে বাহামার পাশে দাঁড়িয়েছে কমনওয়েলথভুক্ত দেশগুলি । মঙ্গলবার রাষ্ট্রপুঞ্জের তরফে জরুরি ভিত্তিতে খাবার ও চিকিৎসার সরঞ্জাম পাঠানো হচ্ছে ।

রাষ্ট্রপুঞ্জের মানবাধিকার সংক্রান্ত গোষ্ঠী জানিয়েছে, ক্ষতিগ্রস্ত অঞ্চলে পরিশ্রুত পানীয় জল পৌঁছে দেওয়াই তাদের অগ্রাধিকার ।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় হারিকেন কেন্দ্রের তরফে জানানো হয়েছে, ৫ থেকে ৬ দিনের মধ্যে ফ্লোরিডা ও জর্জিয়ায় ঢুকে পড়তে পারে ডোরিয়ান ।

দক্ষিণ ক্যারোলাইনার উপকূলে বুধবার রাত থেকে বৃহস্পতিবারের মধ্যে আছড়ে পড়তে পারে বলেও পূর্বাভাস । 

অন্যদিকে, ডোরিয়ান নিয়ে মন্তব্য করে ফের বিতর্কে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ।

বিশেষজ্ঞরা ডোরিয়ানকে ‘ক্যাটিগরি ৫’-এর আওতাভুক্ত করলেও ট্রাম্প জানিয়েছেন, এ ধরনের কোনও স্তরের কথা তাঁর জানা নেই ।

পরে অবশ্য বিশেষজ্ঞরা ডোরিয়ানকে ‘ক্যাটিগরি ৪’-এর আওতাভুক্ত করেছেন ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here