দ্য পিপল ডেস্ক : গতবছর ডিসেম্বরে চিনের উহান থেকে আক্রমণের সূচনা। ধীরে ধীরে বিশ্বের সর্বত্র থাবা বসিয়েছে নভেল করোনা ভাইরাস।মারণ ভাইরাসটিতে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপের তাবড় তাবড় দেশ।

গোটা বিশ্ব জুড়ে চলছে এই মারণ প্রতিষেধক তৈরির চেষ্টা। কিন্তু এখনও সেরকম ইতিবাচক ফল মেলেনি। এর মধ্যেই কিছুটা আশার বাণী শোনাল ইজরাইল। মানুষের শরীরে করোনা ভাইরাসকে খুঁজে তার উপর পাল্টা আক্রমণ শানাতে তৈরি হচ্ছে অ্যান্টিবডি।

ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা দফতরের দাবি,  করোনা চিকিৎসায় অন্যতম তাৎপর্যপূর্ণ আবিষ্কার এই অ্যান্টিবডি। ইসরায়েলের প্রতিরক্ষামন্ত্রী নাফতালি বেনেট জানিয়েছেন, ইজরায়েল ইনস্টিটিউট অফ বায়োলজিক্যাল রিসার্চ একটি ক্লোন বিশিষ্ট অ্যান্টিবডি তৈরি করছে। এটিকে মানব শরীরে প্রবেশ করালে, নিজেই ভাইরাসকে শেষ করতে পারবে। 

ইজরায়েল ইনস্টিটিউট অফ বায়োলজিক্যাল রিসার্চের ডিরেক্টর জানিয়েছেন, এই অ্যান্টিবডি তৈরি ফর্মুলা তারা পেটেন্ট করেছে। এরপর আন্তর্জাতিক যে কোনও সংস্থাকে এই অ্যান্টিবডি তৈরির অনুমতি দেওয়া হবে।

ইজরায়েল ইনস্টিটিউট অফ বায়োলজিক্যাল রিসার্চ সংস্থাটি প্রথম থেকেই করোনার বিরুদ্ধে লড়ছে। রোগীর রক্ত পরীক্ষা থেকে শুরু করে প্রতিষেধকের  খোঁজ সবই করে চলেছে সংস্থাটি। সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এই অ্যান্টিবডিটি একটি প্রোটিন। করোনা রোগ থেকে সেরে ওঠা ব্যক্তির শরীর থেকে একটি কোষ দিয়ে তৈরি করা হচ্ছে এই অ্যান্টিবডি। এই বিশেষ অ্যান্টিবডিটি অন্য বহুকোষ বিশিষ্ট অ্যান্টিবডির থেকে শক্তিশালী।

এটি তৈরি হয়ে মানবদেহে সফলভাবে কাজ করছে কি না তার জন্য তাকিয়ে আছে বিশ্ব।