দ্য পিপল ডেস্ক : করোনা বিপর্যয়ের ফলে লকডাউনের মাঝে পড়ে ব্যবসা সম্পূর্ণভাবে বন্ধ হয়ে পড়েছে নবদ্দীপ শহর সংলগ্ন বিভিন্ন এলাকার মাইক বা সাউন্ড ব্যবসায়ীদের। এরফলে পেটে টান পড়তে শুরু করেছে তাঁদের।


একদিকে করোনা মহামারী অন্যদিকে দীর্ঘ লকডাউন, যার প্রভাবে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার পাশাপাশি জনসমাগম না করার বিষয়ে লক্ষ্য রাখতে হচ্ছে।

এরফলে বিভিন্ন সঙ্গীতানুষ্ঠান থেকে শুরু করে পারিবারিক সামাজিক অনুষ্ঠান সহ পূজার্চ্চনার অনুষ্ঠান সবই বন্ধ হয়ে গিয়েছে।


লকডাউন সামান্য শিথিল হলেও অন্যান্য ব্যবসার মত সরকারের পক্ষ থেকে অনুমতি মেলেনি মাইকের দোকান খোলার।

এই পরিস্থিতিতে মাইক ব্যবসায়ীরা আজ নিজেদের পেটের টানে অন্যের শরণাপন্ন হতে বাধ্য হচ্ছেন। গত পাঁচ মাস ধরে তারা বেকার হয়ে পড়েছেন।

তা সত্ত্বেও বহু ব্যবসায়ী তাদের কর্মচারীদের প্রাথমিকভাবে অর্থ সাহায্য করলেও এখন তা সম্ভব হচ্ছে না তাদের পক্ষে।


নবদ্দীপ মাইক অ্যাসোসিয়েশনের সম্পাদক রনোজ কুমার বিশ্বাস বলেন, গত মার্চ মাস থেকেই মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার জন্য তাদের ব্যবসায় ভাটা পড়তে শুরু করে।

পরীক্ষা শেষ হলেও পরবর্তী সময়ে করোনা বিপর্যয় বিধ্বস্ত হয়ে যায় সারা বিশ্ব। যার প্রভাবে এখনো পর্যন্ত তারা ব্যবসা শুরু করতে পারেনি।

ফলে তারা সম্পূর্ণ কর্মহীন হয়ে পড়েছেন এবং কর্মচারীদের পারিশ্রমিক দিতে পারছেন না, লকডাউন শিথিল হওয়ার পর অন্যান্য ব্যবসার ক্ষেত্রে যেমন ছাড়পত্র মিলেছে সেইরূপ তাদেরকেও মাইকের দোকান খুলে ব্যবসা করার অনুমতি দিক সরকার।