দ্য পিপল ডেস্ক : দীর্ঘ অপেক্ষা ও বিতর্কের অবসান ঘটিয়ে ভারতে এসেছে যুদ্ধ বিমান রাফালে। এবার তার কাজে যোগ দেওয়ার পালা।

সীমান্তের উত্তেজনার মধ্যেই আনুষ্ঠানিক ভাবে বৃহস্পতিবার বায়ুসেনার নতুন সমরাস্ত্র হিসেবে যোগ দিল রাফালে।

আম্বালার বায়ুসেনা ঘাঁটিতে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন দেশের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ। তাঁর সঙ্গে অতিথি হিসেবে ছিলেন ফ্রান্সের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ফ্লোরেন্স পার্লে।

এছাড়া ছিলেন, ডিফেন্স স্টাফ জেনারেল বিপিন রাওয়াত, বিমান বাহিনী প্রধান এয়ার চিফ মার্শাল আরকেএস ভদৌরিয়া, ডিফেন্স সেক্রেটারি ড, অজয় কুমার, দ, জি সতীশ রেড্ডি, সেক্রেটারি ডিপার্ট্মেন্ট অব ডিফেন্স আর অ্যান্ড ডি এবং চেয়ারম্যান ডিআরডিও।

রাফালে বরণ করে নেওয়ার জন্য এদিন অনুষ্ঠানের শুরুতে এসইউ-৩০ এবং জাগুয়ার দ্বারা আকাশ প্রদর্শনী হয়। জলকামানের মাধ্যমে রাফালেকে অভ্যর্থনা জানানো হয়।

রাফালে নিজেও প্রদর্শনী দেখায়। আনুষ্ঠানিক সূচনার পর দুই দেশের মধ্যে একটি বৈঠক হবে বলে সূত্রের খবর।

গত ২৭ জুলাই ভারতে এসেছে ৫টি রাফালে যুদ্ধবিমান। তার মধ্যে ৩টি হল সিঙ্গল সিটের ও ২টি ডাবল সিটের।

রাফালে ভারতীয় বায়ুসেনার ১৭ নং স্কোয়ার্ডনের অংশ হবে। প্রতিরক্ষামন্ত্রী একে গোল্ডেন অ্যারোস বলে চিহ্নিত করেছেন।

টুইটার রাজনাথ সিং বলেন, দুই দশকের বেশি সময় পরে আজকের এই অনুষ্ঠান হতে চলেছে।

প্রসঙ্গত, ২০১৫ সালেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ফ্রান্স থেকে যুদ্ধবিমান কেনার কথা ঘোষণা করেছিলেন, কিন্তু ওই সময় কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধি রাফাল দুর্নীতি নিয়ে অভিযোগ করায় প্রধানমন্ত্রীর সেই সিদ্ধান্ত স্থগিত হয়ে গিয়েছিল।

সেই রাফাল চুক্তি নিয়ে বিতর্ক সুপ্রিম কোর্টে পৌঁছনোর পর কংগ্রেসের তরফ থেকে অভিযোগ বন্ধ করা হয়েছিল।

উল্লেখ্য, চুক্তি অনুয়ায়ী ৩৬ টি বিমানের মধ্যে এখনও পর্যন্ত ফ্রান্স থেকে ৫ টি বিমান এসেছে, ২০২১ সালের মধ্যেই বাকিগুলো এসে পৌঁছবে বলে জানা গিয়েছে।